মামলার ত্রুটি—বিচ্যুতি নিরসণে পুলিশ ও জুডিশিয়াল কর্মকর্তাদের মতবিনিময় সভা

 মোঃ আনোয়ার হোসেন জীবন    ১১ জুন, ২০২৪ ১০:৪৬:০০নিউজটি দেখা হয়েছে মোট 1 বার

খাগড়াছড়ি পুলিশ অফিস সম্মেলন কক্ষে সোমবার সকাল ১০টার সময় মামলার ত্রুটি—বিচ্যুতি নিরসণে পুলিশ ও জুডিশিয়াল কর্মকর্তাদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন খাগড়াছডড়ি জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মুক্তা ধর পিপিএম (বার) মহোদয়।

মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার বলেন, বিচার প্রার্থীদের মাঝে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ প্রশাসন একে অপরের পরিপূরক। পুলিশের সঙ্গে ম্যাজিস্টে্রটদের সেতুবন্ধন সৃষ্টি করার মাধ্যমে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার পথে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা দূর হবে।

পুলিশ ও বিচার বিভাগের অংশীদারিত্বের মাধ্যমে আলাপ—আলোচনা করে সাধারণ মানুষের বিচার পাওয়ার অধিকার নিশ্চিত করা সহজ হবে। তাই ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এবং মামলার দ্রুত বিচার ও নিষ্পত্তির লক্ষ্যে মামলার জট—নিরসনের ক্ষেত্রে তদন্ত ও বিচারিক কার্যক্রম এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের গুরুত্ব অপরিসীম।

সমন জারি ও ক্রোক পরোয়ানা তামিল, পুলিশ কর্তৃক মামলার সাক্ষী উপস্থিতকরণ, সাক্ষীদের আদালতে আগমন ও ফিরে যাওয়ার নিরাপত্তা, আদালত প্রাঙ্গণে বিচারকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা, ফৌজদারী বিচার ব্যবস্থার স্বাচ্ছন্দ্য, মামলা নিষ্পত্তির বিষয়ে পুলিশ ও ম্যাজিস্টে্রসীর মধ্যে সমন্বয় ও সহযোগিতা, মামলা দ্রুত নিষ্পত্তিতে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ নিয়ে পুলিশ সুপার মহোদয় বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেটদের সঙ্গে আলোচনা করেন।

আরও পড়ুন: খাগড়াছড়িতে পুলিশ সুপারের সাথে সকল থানার ইনচার্জদের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি...

উক্ত সভায় পুলিশের তদন্তে নানা প্রতিবন্ধকতা ও সমাধান সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। একই সাথে মেডিকেল সার্টিফিকেট, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন, ফরেনসিক রিপোর্ট, আসামি ও সাক্ষীর প্রসেস পেন্ডিং লিস্ট সম্পর্কে পুলিশ সুপার মতবিনিময় করেন।

বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টে্রট ফরিদ আলম তার বক্তব্যে বলেন, যার যার বিভাগের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করলে দ্রুত মামলা নিষ্পত্তি ও ন্যায়বিচার করা সম্ভব।

এ ছাড়া তদন্ত ও বিচারকার্যে বিভিন্ন সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতার বিষয়ে তিনি আলোকপাত করেন। উক্ত কর্মশালায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টে্রট ফারহান ইসতিয়াক, খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বিভিন্ন থানার অফিসার ইনচার্জসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ।

মোঃ আনোয়ার হোসেন জীবন